পাতা

সিটিজেন চার্টার

                                             
                           

‘‘গ্রাহক সেবা নির্দেশিকা’’

১)  গুরুত্বপূর্ণ টেলিফোন / মোবাইল নম্বরসমূহঃ

জেনারেল ম্যানেজার, রংপুর পবিস-১ সদর দপ্তর

টেলিফোন ০৫২২৫-৫৬৩৪০ / ৪১

মোবাইল ০১৭৬৯-৪০০০৬৯

ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার, কারিগরী, সদর দপ্তর

টেলিফোন

মোবাইল০১৭৬৯-৪০২০৯৬

ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার, পীরগাছা জোনাল অফিস

টেলিফোন ০৫২২৬-৫৬০৬৪

মোবাইল০১৭৬৯-৪০০২৫০

ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার, সুন্দরগঞ্জ জোনাল অফিস

টেলিফোন ০৫৪২৭-৬৪২৪২

মোবাইল০১৭৬৯-৪০০২৫১

সহকারী জেনারেল ম্যানেজার (নিপর),সদর দপ্তর

মোবাইল০১৭৬৯-৪০০৭৪৮

সহকারী জেনারেল ম্যানেজার (নিপর),পীরগাছা জোনাল অফিস

মোবাইল০১৭৬৯-৪০০৭৪৯

সহকারী জেনারেল ম্যানেজার (নিপর),সুন্দরগঞ্জ জোনাল অফিস

মোবাইল০১৭৬৯-৪০০৭৫০

সহকারী জেনারেল ম্যানেজার (নিপর),সাদুল্যাপুর বিলিং এরিয়া অফিস

টেলিফোন ০৫৪২৫-৫৬১৬৫

মোবাইল০১৭৬৯-৪০০৭৫১

সহকারী জেনারেল ম্যানেজার (নিপর),পীরগঞ্জ বিলিং এরিয়া অফিস

মোবাইল০১৭৬৯-৪০০৭৫২

১০

সহকারী জেনারেল ম্যানেজার (সঃ সেবা),সদর দপ্তর

মোবাইল০১৭৬৯-৪০০৭৫৩

১১

সহকারী জেনারেল ম্যানেজার (অর্থ),সদর দপ্তর

মোবাইল০১৭৬৯-৪০০৭৫৪

১২

সহকারী জেনারেল ম্যানেজার (সাঃ সেবা),সদর দপ্তর

মোবাইল০১৭৬৯-৪০০৭৫৫

১৩

সদর দপ্তর অভিযোগ কেন্দ্র

মোবাইল০১৭৬৯-৪০১৭৭৫

১৪

পীরগাছা জোনাল অফিস অভিযোগ কেন্দ্র

মোবাইল০১৭৬৯-৪০১৭৭৬

১৫

সুন্দরগঞ্জ জোনাল অফিস অভিযোগ কেন্দ্র

মোবাইল০১৭৬৯-৪০১৭৭৭

১৬

সাদুল্যাপুর বিলিং এরিয়া অফিসঅভিযোগ কেন্দ্র

মোবাইল০১৭৬৯-৪০১৭৭৮

১৭

পীরগঞ্জ বিলিং এরিয়া অফিসঅভিযোগ কেন্দ্র

মোবাইল০১৭৬৯-৪০১৭৭৯

১৮

বলদীপুকুরঅভিযোগ কেন্দ্র

মোবাইল০১৭৬৯-৪০১৭৮০

১৯

শুকুরেরহাটঅভিযোগ কেন্দ্র

মোবাইল০১৭৬৯-৪০১৭৮১

২০

ভেন্ডাবাড়ী অভিযোগ কেন্দ্র

মোবাইল০১৭৬৯-৪০১৭৮২

২১

খালাশপীরঅভিযোগ কেন্দ্র

মোবাইল০১৭৬৯-৪০১৭৮৩

২২

ধাপেরহাটঅভিযোগ অফিস

মোবাইল০১৭৬৯-৪০১৭৮৪

২৩

নলডাঙ্গাঅভিযোগ কেন্দ্র

মোবাইল০১৭৬৯-৪০১৭৮৫

২৪

পাঁচপীরঅভিযোগ কেন্দ্র

মোবাইল০১৭৬৯-৪০১৭৮৬

২৫

পাওটানা অভিযোগ কেন্দ্র

মোবাইল০১৭৬৯-৪০১৭৮৭

২৬

দামুরচাকলাঅভিযোগ কেন্দ্র

মোবাইল০১৭৬৯-৪০১৭৮৮

 

      ২)  ই-মেইলঃ           rangpurpbs1@yahoo.com

৩)  ওয়েব সাইটঃ      www.rangpurpbs1.org.bd

 

                                    নতুন সংযোগ গ্রহণ

‘‘এক অবস্থানে সেবা কেন্দ্র’’ থেকে নতুন সংযোগের আবেদনপত্র পাওয়া যাবে।

  • আবেদনপত্রটি যথাযথভাবে পুরণ করেনির্ধারিত সমীক্ষা ফি সমিতির ক্যাশ কাউন্টারে জমা প্রদান করে জমা রশিদ ওআবেদনপত্রটি‘‘এক অবস্থানে  সেবা’’-এ জমা করলে আপনাকে আবেদন পত্রের ক্রমিক  নম্বর জানিয়ে দেয়া হবে। 
  • ৭(সাত) দিনের মধ্যে সমিতি কর্তৃক সমীক্ষা সম্পাদন করা হবে।
  • সমিতি কর্তৃক সমীক্ষা সম্পাদনের পরপরবর্তী ৭(সাত) দিনের মধ্যে সমিতির কারিগরী উপদেষ্টা প্রতিষ্ঠান কর্তৃকষ্টেকিং শীট(প্রযোজ্য ক্ষেত্রে) প্রস্ত্তত করা হবে। মালামাল প্রাপ্তিসাপেক্ষে ডিমান্ড নোট ও প্রাক্কলন ইস্যূ করা হবে।
  • ডিমান্ড নোটে উল্লেখিত প্রাক্কলনসমিতির ক্যাশ কাউন্টারে জমা প্রদান করার পর ঠিকাদার কর্তৃক লাইন নির্মাণেরকাজ(প্রযোজ্য ক্ষেত্রে) সম্পন্ন করা হবে।
  • পরবর্তীতে সমিতির প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত ইলেকট্রিশিয়ান দ্বারা আভ্যন্তরীণ ওয়্যারিং সম্পন্ন করে রিপোর্ট দাখিল করতে হবে।
  • ওয়্যারিং রিপোর্ট দাখিলের পর সমিতির ওয়্যারিং পরিদর্শক কর্তৃক ওয়্যারিং পরিদর্শন করা হবে।
  • ওয়্যারিং পরিদর্শনের পর বিলিং শাখা কর্তৃক সিএমও অর্থাৎ মিটার স্থাপনের অর্ডার তৈরী করা হবে।
  • সিএমও তৈরীর পর নিপর বিভাগ কর্তৃক মিটার স্থাপনের ব্যবস্থা করা হবে।
  • যে কোন কারণে সংযোগ প্রদান সম্ভব না হলে আবেদনকারীকে পত্রের মাধ্যমে অবহিত করা হবে।
  • মিটার স্থাপনের পরবর্তী মাসের বিলিং সাইকেল অনুযায়ী গ্রাহকের প্রথম মাসের বিল ইস্যূ করা হবে।

                         নতুন সংযোগের জন্য আবেদন ফি

১)  বাড়ী/বানিজ্যিক/দলগত/দাতব্য প্রতিষ্ঠানে বিদ্যুৎ সংযোগের জন্য নিম্নবর্ণিত হারে সমীক্ষা ফি আবেদনের সহিত জমা  দিতে হবে।

ক)  একক আবেদনের ক্ষেত্রে                                       ১০০.০০ টাকা।

খ)  ২ হতে ৯ জন পর্যন্ত গ্রাহকের ক্ষেত্রে প্রতিজন                  ১০০.০০ টাকা।

গ)  ১০ হতে ২০ পর্যন্ত গ্রুপ সম্বলিত গ্রাহকের ক্ষেত্রে            ১৫০০.০০ টাকা (নির্ধারিত)।

ঘ)  ২১ জন ও তদুর্ধ্বের গ্রুপ সম্বলিত                          ২০০০.০০ টাকা (নির্ধারিত)।

২)সেচ কাজে বিদ্যুৎ সংযোগের জন্য আবেদনের সহিত ২৫০.০০ টাকা  সমীক্ষা ফি জমা প্রদান করতে হবে।

৩) যে কোন ধরণের অস্থায়ী সংযোগের জন্য ১৫০০.০০ টাকা সমীক্ষা ফি বাবদ জমা প্রদান করতে হবে।

৪) বর্ণিত সংযোগ ও শিল্প প্রতিষ্ঠানব্যতীত অন্য কোন সাময়িক/স্থায়ী সংযোগের ক্ষেত্রে ১৫০০.০০(এক হাজার পাঁচশত)টাকা সমীক্ষা ফি জমা প্রদান করতে হবে।

৫) শিল্প সংযোগের জন্য ২৫০০.০০(দুই হাজার পাঁচশত) টাকা সমীক্ষা ফি জমা দিতে হবে।

৬) পোল স্থানান্তর/লাইন রুট পরিবর্তন/স্থাপিত সার্ভিস ড্রপ স্থানান্তর আবেদনের ক্ষেত্রে ১৫০০.০০ টাকা সমীক্ষা ফি জমা দিতে হবে।

৭) ডিপোজিট ওয়ার্কের মাধ্যমে সংযোগেরজন্য বাড়ি/বানিজ্যিক/দাতব্য প্রতিষ্ঠান এর ক্ষেত্রে সমীক্ষা ফি ১৫০০.০০টাকা জমা প্রদান করতে হবে।

৮) বৃহৎ শিল্প প্রতিষ্ঠানের সংযোগের জন্য(এলপি)                ৫০০০.০০ টাকা।

৯) লোড বৃদ্ধির জন্য    (০-১০)  কিঃ ওঃ                      ১০০০.০০ টাকা।

                      (১১-৪৫) কিঃওঃ                       ২০০০.০০ টাকা।

                      (৪৬ থেকে তদুর্ধ)                      ৫০০০.০০ টাকা।

 

                নতুন সংযোগের জন্য জামানতের পরিমান

·         আবাসিক/বাণিজ্যিক/দাতব্যপ্রতিষ্ঠানঃ  প্রথমে ০.৫ কিলোওয়াট এর জন্য ৫০০.০০ টাকা, ০.৫ কিলোওয়াট হতে১.০০কিঃওঃ পর্যন্ত ৬০০.০০ টাকা এবং পরবর্তী প্রতি কিলোওয়াট ও এর ভগ্নাংশেরজন্য  ২০০.০০টাকা হারে জমা দিতে হবে।

·         স্ট্রীট লাইটের ক্ষেত্রেঃ ০৬(ছয়) মাসের মিনিমাম বিলের টাকা জমা প্রদান করতে হবে।

·         সেচ সংযোগের ক্ষেত্রেঃ

ক) অগভীরনলকুপ ও এল.এল.পি-এর ক্ষেত্রে প্রতি অশ্বশক্তির জন্য ৬২৫.০০ টাকা হারে সেচঅগ্রীম জমা দিতে হবে। তবে  মিনিমাম ৩০০০.০০ (তিন হাজার) টাকা (৩ অশ্বশক্তিরমোটরের জন্য) অগ্রীম সেচ জামানত জমা প্রদান করতে হবে।

খ) গভীর নলকুপের প্রতি অশ্বশক্তির জন্য ১০০০.০০ টাকা হারে সেচ অগ্রীম জমা দিতে হবে।          

·         সিঙ্গেল/তিন ফেজ শিল্প সংযোগের ক্ষেত্রে ফেরতযোগ্য জামানত প্রতি কিলোওয়াটের জন্য ১৮৫২.০০ টাকা। 

·         ধানকল ওআটা কলের ক্ষেত্রে প্রতি অশ্বশক্তির বিপরীতে ফেরতযোগ্য জামানত এর সাথেসিঙ্গেল ফেজ/থ্রি ফেজ ৭৫০.০০/১৫০০.০০ টাকা অফেরতযোগ্য জামানত জমা দিতে হবে।                              

                                অস্থায়ী বিদ্যুৎ সংযোগ

সামাজিক ও ধর্মীয় অনুষ্ঠান,বানিজ্যিককার্যক্রম এবং নির্মাণ কাজের নিমিত্তে স্বল্পকালীন সময়ের জন্য বিদ্যুৎসংযোগ গ্রহণ করতে পারবেন।

আবেদন ফি এর সাথে নিম্নলিখিত শর্ত প্রযোজ্যঃ

  • মালামালের মূল্য ১১০% দিতে হবে সংযোগ শেষে ব্যবহারযোগ্য মালামালের ১০০% মূল্য ফেরতযোগ্য।
  • উপদেষ্টা ফি প্রযোজ্য।
  • সংযোগ বিচ্ছিন্নকরণ ফি ২০০.০০(১ ফেজ) ও ন্যূনতম ২০০.০০(৩ ফেজ) টাকা।
  • শিল্প রেটে অগ্রীম বিদ্যুৎ বিল প্রদান করতে হবে (কিঃওয়াটX১০XসংযোগকালX৪.৬৩) ÷ডিমান্ড চার্জ+সার্ভিস চার্জ+ভ্যাট।
  • ট্রান্সফরমার ভাড়া (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)।
  • ট্রান্সফরমার উঠানো-নামানো খরচ।
  • সংযোগ বিচ্ছিন্নকরণের পর মিটারের প্রকৃত ব্যবহারের উপর বিল সমন্বয় করা হবে।
  • উল্লেখিত শর্তাবলী প্রতিপালন সাপেক্ষেচাহিদার দিন থেকে অস্থায়ী সংযোগ দেয়া হবে। গ্রাহক জমা অর্থ মাসিক বিদ্যুৎবিলের সাথে সমন্বয় করা হবে। যদি অস্থায়ী সংযোগ  প্রদান করা সম্ভব না হয় তবেতার কারণ জানিয়ে গ্রাহককে একটি পত্র দেয়া হবে।

                                    লোড পরিবর্তনঃ

·         লোড পরিবর্তন আবেদন ফি প্রদান করতে হবে।

·         পুনঃ চুক্তি সম্পাদন করতে হবে।

·         লোড বৃদ্ধির জন্য প্রযোজ্য অনুযায়ী কিলোওয়াট প্রতি বিদ্যমান হারে জামানত প্রদান করতে হবে।

·         অতিরিক্ত লোডের জন্য বিতরণ লাইন/ট্রান্সফরমার/সার্ভিস তার/মিটার বদলানোর প্রয়োজন হলে উক্ত ব্যয় গ্রাহককে বহন করতে হবে।

·         প্রাক্কলনও জামানতের অর্থ জমা দানের ৭(সাত) দিনের মধ্যে লোড বৃদ্ধি কার্যকর করাহবে। যদি লোড বৃদ্ধি করা সম্ভবপর না হয় তবে তার কারণ জানিয়ে গ্রাহককে একটিপত্র দেয়া হবে।

                             গ্রাহকের নাম পরিবর্তন পদ্ধতি

গ্রাহকের নাম পরিবর্তনের জন্য নিম্নবর্ণিত পদ্ধতি অনুসরণ করতে হবে-

  • জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি জমা দিতে হবে।
  • গ্রাহক ক্রয়সূত্রে/নিজ সূত্রে জায়গা বাপ্রতিষ্ঠানের মালিক হলে সকল দলিলের সত্যায়িত ফটোকপি ও সর্বশেষ পরিশোধিতবিলের কপি সমিতির সদর দপ্তরে জমা দিতে হবে।
  • মরনোত্তর ওয়ারিশ সূত্রে হলে মৃতব্যক্তির মৃত্যু সনদপত্র এবং ওয়ারিশনামা ও অন্যান্য ওয়ারিশগণের নাদাবীপত্রচেয়ারম্যান কর্তৃক সত্যায়িত হতে হবে।
  • পূর্বের নামীয় হিসাবের সকল বিদ্যুৎ বিল তথা আনুষাঙ্গিক পাওনাদি পরিশোধ থাকতে হবে।
  • নতুন নামে সদস্য হতে হবে।
  • নতুন নামে ০২ কপি পাসপোর্ট সাইজের রঙ্গিন ছবি এবং নির্ধারিত হারে জামানত জমা দিতে হবে।
  • নতুন নামে চুক্তিপত্র সম্পাদন করতে হবে(প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)।
  • নাম পরিবর্তনে গ্রাহক শ্রেণী হিসাবে নির্ধারিত ফি জমা দিতে হবে।

                                         এক অবস্থানের সেবা

পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ‘‘এক অবস্থানেসেবা’’ এ নতুন বিদ্যুৎ সংযোগ, বিদ্যুৎ বিভ্রাট/ বিল/ মিটার সংক্রান্তঅভিযোগ, বিল পরিশোধের ব্যবস্থাসহ সকল ধরণের অভিযোগ জানানো যাবে এবংএতদসংক্রান্ত বিষয়ে তথ্য পাওয়া যাবে।

                                       বিল সংক্রান্ত অভিযোগ

বিল সংক্রান্ত যে কোন অভিযোগ যেমনঃ চলতি মাসের বিল পাওয়া যায়নি, বকেয়া বিল, অতিরিক্ত বিল ইত্যাদির জন্য‘‘সমিতির সদর দপ্তর / জোনাল অফিস / বিলিং এরিয়া অফিস / এরিয়া অফিস / অভিযোগ কেন্দ্র’’ এযোগাযোগ করলে তাৎক্ষণিক সমাধান সম্ভব হলে তা নিম্পত্তি করা হবে। অন্যথায়একটি নিবন্ধন নম্বর দিয়ে পরবর্তী যোগাযোগের সময় জানিয়ে দেয়া হবে এবংপরবর্তী  ৭(সাত) দিনের মধ্যে নিম্পত্তির ব্যবস্থা নেয়া হবে।

                                     বিল পরিশোধ

·         সমিতির সদর দপ্তর/নির্ধারিত ব্যাংক/দপ্তর-এ গ্রাহক বিল পরিশোধ করতে পারবেন।

·         যদি কোনবিদ্যুৎ বিল/মিটার রিডিং ক্রটিপূর্ণ মনে হয়,পরিশোধের তারিখের পূর্বে গ্রাহকঅবশ্যই সমিতির সংশ্লিষ্ট দপ্তরকে অবহিত করে প্রয়োজনীয় সংশোধনের ব্যবস্থাগ্রহণ করবেন।

·         নিম্নলিখিতকারণে গ্রাহকের সংযোগ বিচ্ছিন্ন,জরিমানা ও সমিতির সদস্য পদ বাতিল হতেপারে। প্রয়োজনে তার বিরুদ্ধে ফৌজদারী মামলা হতে পারে।

·         গ্রাহক ইচ্ছাকৃতভাবে সমিতির সম্পত্তি বা সাজ-সরঞ্জামের ক্ষতিসাধন করলে।

·         অবৈধভাবে বিদ্যুৎ ব্যবহার করলে বা মিটারে অবৈধ হস্তক্ষেপ করলে।

·         বিল ইস্যূর ৯০ দিনের মধ্যে বিল পরিশোধ না করলে।

·         গ্রাহক বাতার প্রতিনিধি সমিতির কর্মকর্তা বা কর্মচারীকে ভয়-ভীতি প্রদর্শন বা শারীরিকনির্যাতন করলে কিংবা তার কর্তব্যকর্মে বাধা সৃষ্টি করলে।

·         নির্ধারিততারিখের মধ্যে বিল পরিশোধ না করলে সংযোগ বিচ্ছিন্নকারী দলের নিকট পরিশোধকরতে হবে। এক্ষেত্রে বকেয়া বিল ছাড়াও রশিদ গ্রহণের মাধ্যমে অতিরিক্ত ফিবাবদ নিম্নোক্ত  হারে অর্থ পরিশোধ করতে হবে।

·         আবাসিক/দাতব্য প্রতিষ্ঠান ১৫০/- টাকা;

·         বানিজ্যিক গ্রাহক ২২৫.০০ টাকা;

·         একফেজ/তিনফেজ সেচ গ্রাহক ২০০.০০/৪০০.০০ টাকা;

·         একফেজ ও তিনফেজ শিল্প গ্রাহক ৪০০.০০/ন্যূনতম ৪০০.০০ সবোর্চ্চ ৩০০০.০০ টাকা এবং

·         তিন ফেজ এলপি গ্রাহক ৩০০০.০০ টাকা।

                                    বিদ্যুৎ বিভ্রাটের অভিযোগ

বিদ্যুৎ সরবরাহ ইউনিটের নির্দিষ্ট‘‘অভিযোগ কেন্দ্র’’ অথবা ‘‘এক অবস্থানে সেবা’’ -এ আপনার বিদ্যুৎ বিভ্রাটেরঅভিযোগ জানানো হলে আপনাকে অভিযোগ নম্বর ও নিম্পত্তির সম্ভাব্য সময় জানিয়েদেয়া হবে। অভিযোগ নম্বরের ক্রমানুসারে আপনার বিদ্যুৎ বিভ্রাট দূরীভূত করারলক্ষ্যে ২৪ ঘন্টার মধ্যে নিস্পত্তির ব্যবস্থা নেয়া হবে। কোন কোন ক্ষেত্রেযদি নির্ধারিত সময়ে বিদ্যুৎ বিভ্রাট দূরীভূত করা সম্ভব না হয় তার কারণগ্রাহককে অবহিত করা হবে।

কাংখিত সেবা না পাওয়া গেলে নিম্নোক্ত ব্যক্তির সংগে যোগাযোগ রাখার জন্য অনুরোধ করা হল।

                                                 জেনারেল ম্যানেজার

                                            রংপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১

                                           মোবাইল- ০১৭৬৯-৪০০০৬৯

অবৈধভাবে বিদ্যুৎ ব্যবহার, মিটারে হস্তক্ষেপ,বাইপাস, বিনা অনুমতিতে সংযোগ গ্রহণ ইত্যাদি ক্ষেত্রে আইনগত ব্যবস্থা

বিদ্যুৎ আইনের (Electricty Act,1910 & As Amended The Electricty (Amendment) Act,2006 ) ৩৯ ধারা অনুসারে এক্ষেত্রে ন্যূনতম ১ বছর হতে ৩ বছর পর্যন্ত জেল এবং ১০ হাজার টাকা জরিমানারবিধান রয়েছে। তাছাড়া অবৈধভাবে বিদ্যুৎ ব্যবহারের জন্য নিয়মানুযায়ীপ্রাক্কলিত বিল এবং জরিমানা প্রদান করতে হবে। এ ছাড়াও উক্ত বিদ্যুৎব্যবহারের দ্বারা যদি বিদ্যুৎ সরবরাহ  সংস্থার বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম, মিটার,মিটারিং ইউনিট ইত্যাদি ক্ষতিগ্রস্থ হয় তবে ক্ষতিগ্রস্থ বৈদ্যুতিকসরঞ্জাম,মিটার,মিটারিং ইউনিট ইত্যাদি পুনরায় সচল করা গেলে ৫০% মুল্য অথবাসম্পূর্ণ ধংসপ্রাপ্ত বা পুনরায় সচল করা যাবে না এরুপ সরঞ্জামের জন্যপুনঃস্থাপনের ব্যয়সহ ১০০% প্রকৃত মূল্য আদায় করা হবে।

                                               শ্রেণীভিত্তিক বিদ্যমান বিদ্যুতের মূল্যহার

                                     (সংশোধিত মে,২০১৫ খ্রিঃ পর্যন্ত)

 ক্রমিক নং

     গ্রাহক শ্রেণী

প্রতি ইউনিট মূল্য (টাকায়)

     ০১

শ্রেণী - বিঃ আবাসিক

(ক) প্রথম ধাপঃ    ০১ হতে৫০ ইউনিট পর্যন্ত

(খ) দ্বিতীয় ধাপঃ   ৫১ হতে ৭৫ ইউনিটপর্যন্ত

(গ) তৃতীয় ধাপঃ   ৭৬ হতে ২০০ ইউনিটপর্যন্ত

(ঘ) চতুর্থ  ধাপঃ   ২০১হতে ৩০০ ইউনিটপর্যন্ত

(ঙ) পঞ্চম  ধাপঃ  ৩০১হতে ৪০০ ইউনিটপর্যন্ত

(চ)ষষ্ঠধাপঃ     ৪০১হতে ৬০০ ইউনিটপর্যন্ত

(ছ) সপ্তম ধাপঃ    ৬০০ ইউনিটএর উর্ধ্বে

 

           ৩.৮০

           ৩.৮৭

           ৫.০১

           ৫.১৯

           ৫.৪২

           ৮.৫১

           ৯.৯৩

     ০২

শ্রেণী - আইঃ কৃষি কাজে ব্যবহৃত পাম্প

           ৩.৯০

     ০৩

শ্রেণী - জি পি (ক্ষুদ্র শিল্প)

(ক) ফ্ল্যাট রেট

 

           ৭.৪২

     ০৪

শ্রেণী - সিআইঃ দাতব্য প্রতিষ্ঠান

           ৪.৯৮

     ০৫

শ্রেণী - সিঃ বানিজ্যিক

           ৯.৫৮

     ০৬

শ্রেণী - এল পিঃ বৃহৎ শিল্প (৫০ কিঃ ওঃ লোডের উর্দ্ধে)

 (ক) ফ্ল্যাট রেট

 

           ৭.৩২

     ০৭

শ্রেণী - এস এলঃ রাস্তার বাতি

           ৬.৯৩

পিক সময়ঃ  বিকাল ৫টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত

—অফ-পিক সময়ঃ  রাত ১১টা থেকে পরদিন বিকাল ৫টা পর্যন্ত

উপরোক্ত বিদ্যুতের মূল্যহারের সাথেন্যুনতম চার্জ, ডিমান্ড চার্জ, সার্ভিস চার্জ ও অন্যান্য শর্তাবলীসহ  মূল্য  সংযোজন  কর  যথারীতি  প্রযোজ্য  হবে। বিদ্যুতের মূল্যহার যথাযথকর্তৃপক্ষ কর্তৃক অনুমোদিত এবং পরিবর্তনযোগ্য।

                                গ্রাহকের জ্ঞাতব্য বিষয়

·         সান্ধ্য পিক-আওয়ারে বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হোন।  আপনার সাশ্রয়কৃত বিদ্যুৎ অন্যকে আলো জ্বালাতে সহায়তা করবে।

·         সংযোগবিচ্ছিন্ন এড়াতে নিয়মিত বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করুন এবং বিলম্ব মাশুল, সদস্যপদ বাতিল ও বকেয়া বিলের জন্য মামলা দায়েরের  ঝামেলা থেকে মুক্ত থাকুন।

·         ৮৩% বিদ্যুৎ বিল সাশ্রয়কল্পে মানসম্মত এনার্জি সেভিং বাল্ব (CFL ) ও বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম ব্যবহার করুন।

·         টিউব লাইটে Electronic Ballastব্যবহার করে বিদ্যুৎ সাশ্রয় করুন।

·         বিদ্যুৎ একটি মূল্যবান জাতীয় সম্পদ। দেশের বৃহত্তর স্বার্থে এই সম্পদের সুষ্ঠু ও পরিমিত ব্যবহারে ভূমিকা রাখুন।

·         বৎসরান্তে পবিস হতে বিদ্যুৎ বিল পরিশোধের প্রমান পত্র প্রদান করা হয়ে থাকে।

·         মিটার রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব আপনার। এর সঠিক সুষ্ঠু অবস্থা ও সীলসমূহের নিরাপত্তা নিশ্চিত করুন  অন্যথাই-আপনিই দায়ী থাকবেন।

·         লোড শেডিংসংক্রান্ত তথ্য সংস্থা সমূহের ওয়েব সাইট থেকে জানা যাবে। যদি কোন কারণেওয়েব সাইট থেকে তথ্য না পাওয়া যায় সেক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট এলাকার আওতাধীনকন্ট্রোল রুম/ অভিযোগ কেন্দ্র থেকে জানা যাবে।

·         বিদ্যুৎচুরি ও এর অবৈধ ব্যবহার থেকে নিজে বিরত থাকুন ও অন্যকে নিবৃত্ত করুন।বিদ্যুৎ চুরি ও এর অবৈধ ব্যবহার রোধে আপনার জ্ঞাত তথ্য ‘‘গ্রাহক সেবাকেন্দ্রে/অভিযোগ কেন্দ্রে অবহিত করে নৈতিক দায়িত্ব পালন করুন।

·         ইদানিংএকটি সংঘবন্ধ অসাধু চক্র চালু লাইন হতে ট্রান্সফরমার/বৈদ্যুতিকযন্ত্রপাতি/তার চুরির সাথে জড়িত। সুতরাং আপনার এলাকার উপরিউক্ত চুরি রোধেতথ্য দিয়ে সহযোগীতা করুন এবং সামাজিক প্রতিরোধ গড়ে তুলুন।

 

                                             পার্শ্ব সংযোগ জরিমানা

পার্শ্ব সংযোগ গ্রহন করিয়া যে শ্রেনীর কাজে বিদ্যুৎব্যবহার করা হইবে সেই শ্রেনীর জন্য নির্ধারিত হারে জরিমানা আরোপ করা হবে।

                                                            এ ক্ষেত্রে জরিমানা নিন্মরুপঃ

আবাসিক/দাতব্য প্রতিষ্ঠান পার্শ্বসংযোগ গ্রহন করিয়া বিদ্যুৎ ব্যবহার করিলে প্রতি পার্শ্ব সংযোগের জন্য জরিমানা

                      ২৫০.০০ টাকা

বাণিজ্যিক শ্রেনীর গ্রাহক পার্শ্বসংযোগ গ্রহন করিয়া বিদ্যুৎ ব্যবহার করিলে প্রতি পার্শ্ব সংযোগের জন্য জরিমানা

                      ৫০০.০০ টাকা

সেচ শ্রেনীর গ্রাহক পার্শ্ব সংযোগ গ্রহন করিয়া বিদ্যুৎ ব্যবহার করিলে প্রতি পার্শ্ব সংযোগের জন্য জরিমানা

                  ১,৫০০.০০ টাকা

জিপি/এলপি শ্রেনীর গ্রাহক পার্শ্ব সংযোগ গ্রহন করিয়া বিদ্যুৎ ব্যবহার করিলে প্রতি পার্শ্ব সংযোগের জন্য জরিমানা

                  ৩,০০০.০০ টাকা


Share with :

Facebook Twitter